৪০টি রূহানী চিকিৎসা | 40 ti Rohani Treatment

৪০টি রূহানী চিকিৎসা, 40 ti Rohani Treatment বিভিন্ন আমল, রোগ মুক্তির দোয়া, Rohani Treatment, জ্ঞান বাড়ার দোয়া, রোগ মুক্তির দোয়া, বিপদ থেকে মুক্তির দো
Join our Telegram Channel!

   ৪০টি রূহানী চিকিৎসা


৪০টি রূহানী চিকিৎসা | 40 ti Rohani Treatment


Tag: ৪০টি রূহানী চিকিৎসা, Rohani Treatment, 40 Ti Rohani Treatment



৪০টি রূহানী চিকিৎসা:

(১) “ هو الله الرحيم ”: যে প্রত্যেহ নামাযের পর ৭ বার পাঠ করবে, ان شاء الله عز وجل শয়তানের ক্ষতি হতে বেঁচে থাকবে এবং তার ঈমানের সাথে মৃত্যু নছীব হবে ।

(২) “ يا ملك ”: যে গরীব ব্যক্তি প্রত্যেহ ৯০ : বার পাঠ করবে, ان شاء الله عز وجل দরিদ্র অবস্থা হতে মুক্তি লাভ করবে।

(৩) “ يا قدوس ” যে কেউ সফর অবস্থায় এ ওয়াযিফা পড়তে থাকবে, ان شاء الله عز وجل ক্লান্তি বা অবসাদ হতে নিরাপদ থাকবে।

(৪) “ يا سلام ”: ১১১ বার পাঠ করে অসুস্থ ব্যক্তির উপর ফুঁক দেয়াতে । ان شاء الله عز وجل আরোগ্য লাভ হবে।

(৫) “ يا مهيمن ”: যে কোন চিন্তাগ্রস্থ ব্যক্তি প্রত্যেহ ২৯ বার পাঠ করে নিবে, ان شاء الله عز وجل তার দুশ্চিন্তা দূর হবে।

(৬) “ يا مهيمن ”: প্রত্যেহ ২৯ বার পাঠকারী ان شاء الله عز وجل প্রত্যেক বিপদ-আপদ হতে নিরাপদ থাকবে।

(৭) “يا عزيز ”: ৪১ বার। বিচারক বা অফিসার ইত্যাদির নিকট (জায়িয উদ্দেশ্য পূরনের জন্য) যাওয়ার পূর্বে পাঠ করে নিন, ان شاء الله عز وجل ঐ বিচারক বা অফিসার দয়ালু হয়ে যাবে।


৪০টি রূহানী চিকিৎসা:

(৮) “يا متكبر ”: প্রতিদিন ২১ বার পাঠ করে নিন, ভয়-ভীতিপূর্ণ স্বপ্ন দেখে থাকলে ان شاء الله عز وجل এটার বরকতে ভয়ংখর স্বপ্ন দেখবে না। (চিকিৎসার সময় হতে আরোগ্য লাভ হওয়া পর্যন্ত)

(৯) “ يا متكبر ”: ১০ বার স্ত্রীর সাথে “মিলন” করার পূর্বে পাঠকারী ان شاء الله عز وجل নেক্কার সন্তানের পিতা হবে ৷

(১০) “ يا بار ء ”: ১০ বার। যে কেউ প্রত্যেক  জুমা (শুক্রবার) পড়ে নিবে, ان شاء الله عز وجل তা তার পুত্র সন্তান হবে।

(১১) “ يا قهار ”: ১০০ বার। যদি কোন বিপদ  আসে তবে পাঠ করুন।  ان شاء الله عز وجل বিপদ দূর হয়ে যাবে।

(১২) “ يا وهاب ”: ৭ বার। যে প্রত্যেহ পাঠ করবে,  ان شاء الله عز وجل সে মুস্তাযাবুদ দাওয়াত হয়ে যাবে । (অর্থাৎ তার প্রত্যেক দোআ কবুল হবে)

(১৩) “ يا فتاح ”: ৭০ বার। প্রত্যেহ যে ফজর নামাযের পর দু'হাত সিনা অর্থাৎ বুকের উপর রেখে পাঠ করবে,  ان شاء الله عز وجل, তার অন্তরের মরিচা ও ময়লা দূর হবে।


৪০টি রূহানী চিকিৎসা:

(১৪) “ يا فتاح ”: ৭ বার। যে প্রতিদিন (দিনের যে কোন সময়) পাঠ করবে,  ان شاء الله عز وجل তার অন্তর আলোকিত হবে ।

(১৫) “ يا قابض ” : ৩০ বার। যে প্রতিদিন পাঠ করবে, সে  ان شاء الله عز وجل শত্রুর উপর বিজয় লাভ করবে।

(১৬) “ يا رافع ”: ২০ বার। যে প্রতিদিন পাঠ করবে,  ان شاء الله عز وجل তার উদ্দেশ্য পূরণ হবে।

(১৭) “يا بصير ”: ৭ বার। যে কেউ প্রত্যহ আসরের সময় (অর্থাৎ আসর শুরুর সময় হতে সূর্য অস্ত যাওয়া পর্যন্ত যে কোন সময়) পাঠ করে নিবে, 

 ان شاء الله عز وجل আকস্মিক মৃত্যু বরণ করা হতে নিরাপদ থাকবে।

(১৮) “ يا سميع ”: ১০০ বার। যে প্রত্যেহ পাঠ করবে ও পাঠকালে কথা-বার্তা বলবেনা এবং পাঠ করে দোআ করবে, পাবে।  ان شاء الله عز وجل যা প্রার্থনা করবে তা পাবে।


৪০টি রূহানী চিকিৎসা:

(১৯) “ يا حكيم ”: ৮০ বার। যে প্রত্যেহ পাঁচ ওয়াক্ত নামাযের পর পাঠ করবে,  ان شاء الله عز وجل কারো মুখাপেক্ষী হবে না।

(২০) “ يا جليل ”: ১০ বার পাঠ করে যে নিজের কোন সম্পদ ও মালপত্র এবং টাকা-পয়সা বা মূল্যবান বস্তুর ইত্যাদির উপর ফুঁক মেরে দেয়,  

ان شاء الله عز وجل এটি চুরি হওয়া হতে নিরাপদ থাকবে।

(২১) “يا شهيد”: ২১ বার। যে সকালে সূর্য উঠার আগে আগে) অবাধ্য ছেলে-মেয়ের কপালে হাত রেখে আসমানের দিকে মুখ করে পাঠ করবে, ان شاء الله عز وجل তার ছেলে-মেয়ে নেক্কার ও বাধ্যগত হবে। 

(২২) "يا وكيل”: ৭ বার। যে প্রতিদিন আসরের সময় পাঠ করে নিবে, ان شاء الله عز وجل বিপদ, দুর্ঘটনা হতে নিরাপত্তা লাভ করবে । 

(২৩) “يا حميد”: ৯০ বার । যার মন্দ কথা বলার অভ্যাস যায় না, তিনি পাঠ করে কোন খালি পেয়ালা বা গ্লাসে ফুঁক দিয়ে দিন। প্রয়োজন অনুযায়ী সেটাতে পানি পান করুন,

ان شاء الله عز وجل অশ্লীল কথা বলার অভ্যাস দূর হয়ে যাবে। (একবার ফুঁক দেয়া গ্লাস বছরের পর বছর ব্যবহার করা যাবে)

(২৪) “يا محصى” : ১০০০ বার। যে কেউ প্রত্যেক জুমার রাতে (অর্থাৎ বৃহস্পতিবার ও শুক্রবারের মধ্যবর্তী রাতে) পাঠ করে নিবে, ان شاء الله عز وجل কবর ও কিয়ামতের শাস্তি হতে নিরাপদ থাকবে।


৪০টি রূহানী চিকিৎসা:

(২৫) “ يا محيي ”: ৭ বার পাঠ করে পেট ফাঁপা, পেট বা যে কোন স্থানে ব্যথা হোক অথবা শরীরের কোন অঙ্গ নষ্ট হয়ে যাওয়ার ভয় থাকে, 

নিজের উপর ফুঁক দিয়ে দিন, ان شاء الله عز وجل উপকার হবে। (চিকিৎসার সময় হতে আরোগ্য লাভ পর্যন্ত কমপক্ষে ১ বার)

(২৬) “يا محيي يا مميت”: ৭ বার। যে প্রতিদিন পাঠ করে নিজের (শরীরের) উপর ফুঁক মেরে নেয়, যাদু ক্ষতি সাধন করতে পারবে না ।

(২৭) “يا واجد”: যে কেউ খাবার খাওয়ার সময় প্রত্যেক গ্রাসের (পূর্বে) পাঠ করতে থাকবে, ان شاء الله عز وجل ঐ খাবার তার পেটে নূর হবে এবং রোগ দূর হয়ে যাবে।

(২৮) “يا ماجد”: ১০ বার। পাঠ করে শরবতের উপর ফুঁক দিয়ে যে পান করে নিবে, ان شاء الله عز وجل সে (কঠিন) রোগাক্রান্ত হবে না।

(২৯) “يا واحد”: ১০০১ বার। যার একাকী অবস্থায় ভয় লাগে, তবে একাকী অবস্থায় পাঠ করে ان شاء الله عز وجل তার অন্তর হতে ভয়-ভীতি দূর হয়ে যাবে।

(৩০) “يا قادر ” : যে অযুর মধ্যে প্রত্যেক অঙ্গ ধোয়ার সময় পাঠ করার অভ্যাস করে নেয়, ان شاء الله عز وجل শত্রু তাকে কু-পথে পরিচালিত করতে পারবে না।


৪০টি রূহানী চিকিৎসা:

(৩১) “يا قادر”: ৪১ বার বিপদ এসে গেলে  পাঠ করে নিন, ان شاء الله عز وجل বিপদ দূর হয়ে যাবে।

(৩২) “يا مقتدر ”: ২০ বার। যে প্রতিদিন পাঠ করে নিবে, ان شاء الله عز وجل সে রহমতের ছায়ায় থাকবে।

(৩৩) “يا مقتدر ”: ২০ বার। যে ঘুম থেকে জাগ্রত হয়ে পাঠ করে নিবে, তার সকল কাজে আল্লাহ্ তাআলার সাহায্য সাথে থাকবে।

(৩৪) “يا ্وরل”: ১০০ বার। যে প্রতিদিন পাঠ করে নিবে, ان شاء الله عز وجل তার স্ত্রী তাকে ভালবাসবে।

(৩৫)“ يا اول ”: ২০ বার। স্ত্রী অসন্তুষ্ট হলে স্বামী, আর স্বামী অসন্তুষ্ট হলে স্ত্রী, শোয়ার পূর্বে বিছানায় বসে পাঠ করলে, ان شاء الله عز وجل আপোষ হয়ে যাবে। (সময়সীমাঃ উদ্দেশ্য পূরণ না হওয়া পর্যন্ত)

(৩৬) “يا ظاهر”: ঘরের দেয়ালে লিখে দিন, ان شاء الله عز وجل দেয়াল নিরাপদ থাকবে


৪০টি রূহানী চিকিৎসা:

(৩৭) “يا رؤوف” : ১০ বার। যে কোন অত্যাচারী হতে মযলুম বা অত্যাচারিত ব্যক্তিকে জালিম থেকে বাঁচাতে চায় এবং তার পাওনা উসূল করে দিতে চায়, 

সে যেন (এ ওয়াজীফা) পাঠ করার পর ঐ অত্যাচারীর সাথে কথা বলে, ان شاء الله عز وجل অত্যাচারী ব্যক্তি তার সুপারিশ গ্রহণ করে নিবে।

(৩৮) “يا غني”: মেরুদন্ড, হাঁটু, শরীরের বিভিন্ন স্থানের জোড়া ইত্যাদি ও শরীরের যে কোন স্থানে ব্যথা হোক, চলা-ফেরা, 

উঠা-বসার সময় পাঠ করতে থাকুন, ان شاء الله عز وجل ব্যথা দূরিভূত হয়ে যাবে।

(৩৯) “يا مغني”: ১ বার পাঠ করে হাতে ফুঁক দিয়ে ব্যথার স্থানের উপর মালিশ করাতে ان شاء الله عز وجل শান্তি লাভ হবে।

(৪০) “يا نافع”: ২০ বার। যে কেউ কোন কাজ শুরু করার পূর্বে পড়ে নিবে, ان شاء الله عز وجل কাজ তার ইচ্ছা অনুযায়ী পূরণ হবে।


বিঃদ্র: বইটির pdf ফাইল ডাউনলোড করতে চাইলে নিচে Download Now বাটনে ক্লিক করুন।


Post a Comment

Cookie Consent
We serve cookies on this site to analyze traffic, remember your preferences, and optimize your experience.
Oops!
It seems there is something wrong with your internet connection. Please connect to the internet and start browsing again.
AdBlock Detected!
We have detected that you are using adblocking plugin in your browser.
The revenue we earn by the advertisements is used to manage this website, we request you to whitelist our website in your adblocking plugin.
Site is Blocked
Sorry! This site is not available in your country.
close