প্রসঙ্গের মধ্য থেকে যোগাযোগ ৭ম/সপ্তম শ্রেনির নতুন বাংলা বই - ১ম অধ্যায়ের সকল প্রশ্নের সমাধান (PDF)

প্রসঙ্গের মধ্য থেকে যোগাযোগ - ৭ম/সপ্তম শ্রেনির নতুন বাংলা বইয়ের ১ম অধ্যায়ের সকল প্রশ্নের সমাধান - Class 7 Bangla chapter 1 All Questions and Answers
Join our Telegram Channel!

প্রসঙ্গের মধ্য থেকে যোগাযোগ - ৭ম/সপ্তম শ্রেনির নতুন বাংলা বই - ১ম অধ্যায়ের সকল প্রশ্নের সমাধান। Class 7 Bangla Chapter 1 All Questions and Solutions

প্রসঙ্গের মধ্য থেকে যোগাযোগ ৭ম/সপ্তম শ্রেনির বাংলা

সপ্তম শ্রেণির নতুন বাংলা বই ২০২৩
প্রথম অধ্যায়: প্রসঙ্গের মধ্য থেকে যোগাযোগ
সকল প্রশ্নের সমাধান
সপ্তম শ্রেণির ফেইসবুক স্টাডি গ্রুপে নিচের লিংক থেকে জয়েন করে নিন। সেখানে আমি প্রতিদিন বিভিন্ন বিষয়ের সমাধান ও ছকসমূহ পূরণ করে দিয়ে দিব। আর আপনাদের বিভিন্ন সমস্যা ও বাড়ির কাজ গুলো সেখানে পোষ্ট করবেন। আমি সেগুলো দেখব এবং ভুল থাকলে কারেকশন করে দিব।
ফেইসবুক স্টাডি গ্রুপ লিংক:  Click Here

এই অধ্যায় ভালোভাবে জানার জন্য শিক্ষার্থীদের কিছু বিষয়ে জানা খুবই প্রয়োজন। নিচে সেগুলো আলোচনা করা হলো:

সর্বনাম কাকে বলে?

সর্বনাম: নামের পরিবর্তে যে সকল শব্দ ব্যবহৃত হয় তাকে সর্বনাম বলে।
যেমন: হস্তী প্রাণীজগতের সর্ববৃহৎ প্রাণী। তার শরীরটা যেন বিরাট এক মাংসের স্তুপ। এখানে ‘তার’ শব্দটি সর্বনাম। সাদিয়া ক্লাসের মেধাবী ছাত্রী। সে প্রতিদিন স্কুলে আসে।

সর্বনাম তিন প্রকার:
১। সাধারণ সর্বনাম: যে সর্বনামগুলো আপন পরিবেশে অর্থাৎ ভাই-বোন, বাবা-মা, বন্ধু এবং ঘনিষ্ঠজনের সঙ্গে কথা বলতে ব্যবহৃত হয় তখন তাকে সাধারণ সর্বনাম বলে। যেমন: তুমি, তোমরা, সে, তারা ইত্যাদি।

২। মানী সর্বনাম: যে সর্বনামগুলো বয়সে বড় কিংবা অপরিচিত কারো সাথে কথা বলতে ব্যবহৃত হয় তখন তাকে মানী সর্বনাম বলে । যেমন: আপনি, আপনারা, তিনি, তাঁরা ইত্যাদি।

৩। ঘনিষ্ঠ সর্বনাম: কারো সঙ্গে অতি ঘনিষ্ঠতা বুঝাতে অথবা তুচ্ছতাচ্ছিল্য করতে যে সর্বনাম ব্যবহৃত হয় তাকে ঘনিষ্ঠ সর্বনাম বলে। যেমন: তুই, তোরা, ও, ওরা ইত্যাদি।

৩। ঘনিষ্ঠ সর্বনাম: কারো সঙ্গে অতি ঘনিষ্ঠতা বুঝাতে অথবা তুচ্ছতাচ্ছিল্য করতে যে সর্বনাম ব্যবহৃত হয় তাকে ঘনিষ্ঠ সর্বনাম বলে ৷ যেমন: তুই, তোরা, ও, ওরা ইত্যাদি।

পরিস্থিতি-১: 

আজ তুমি ও তোমার সহপাঠী সবার আগে ক্লাসে চলে এসেছ। ক্লাসরুম একটু আগেই ঝাড়ু দেওয়া হয়েছে এবং মেঝে পানি দিয়ে মুছে দেওয়া হয়েছে, যা তুমি খেয়াল করোনি। ভেজা মেঝেতে তোমার জুতার ছাপ পড়ায়, বিদ্যালয়ের পরিছন্নতাকর্মী ওই জায়গাগুলোতে আবার মুছে দিতে থাকলেন। এ অবস্থায় তুমি তাকে কী বলবে এবং কীভাবে বলবে?

নমুনা উত্তর:

বিনয়ের সাথে বলবো, আপনি মেঝেটা পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন করছেন আমি খেয়াল করেনি। যার জন্য মেঝেটা নোংরা হয়ে গেছে। দয়া করে আপনি আমাকে ক্ষমা করেন।

পরিস্থিতি-২: 

বিশেষ প্রয়োজনে মাকে নিয়ে আত্মীয়ের বাড়ি যেতে হবে, যেখানে আগে কখনো যাওনি। সেই আত্মীয়রা থাকেতোমাদের বাড়ি থেকে কিছুটা দূরে। ওই জায়গায় কীভাবে যাবে, আর ঠিকমতো পৌঁছানোর পর কার কার সাথে যোগাযোগ করবে?

নমুনা উত্তর:

আপনি কি দয়া করে বলবেন আমাদের কিভাবে আসতে হবে?
পৌঁছানোর পর: আত্মীয়ের বাড়িতে যারা আমার থেকে বয়সে বড় তাদের সাথে আপনি করে সম্বোধন করবো। এবং যারা আমার থেকে বয়সে ছোট তাদের কে তুমি করে সম্বোধন করবো ।

পরিস্থিতি-৩: 

বাল্যববাহের একজন ব্যক্তি হতে যাচ্ছে। এ নিয়ে বন্ধুরা আলোচনা করুন এবং তা নির্ধারণ করুন যে আপনি বাল্যবাহকে বাধা দেওয়ার চেষ্টা করবেন এখন বন্ধুরা কার সাথে যোগাযোগ করবে এবং কী বলবে?

নমুনা উত্তর:

বাল্যবিবাহ প্রতিরোধের জন্য প্রথমেই আমরা স্কুলের প্রধান শিক্ষকের অথবা শ্রেণি শিক্ষকের সাথে কথা বলবো এবং তাদেরকে অবশ্যয় আপনি করে সম্বোধন করবো। যেমন: আমাদের স্কুলের এক সহপাঠী বাল্যবিবহের শিকার হচ্ছে। আপনি/আপনারা দয়াকরে যথাযথ পদক্ষেপ নেন। তখন তিনি/তাঁরা প্রশাসনের কাছে যেয়ে যথাযথ ব্যবস্থা নিবেন। অথবা প্রশাসন কিংবা পুলিশকে প্রয়োজনে স্বাক্ষী দিবো।

পরিস্থিতি-৪: 

গুরুত্বপূর্ণ একজন ব্যক্তি নতুন করা হয়েছে। সে ও তার পরিবার এ আবার আগে আসে। আপনার বিদ্যালয় এবং এলাকা সম্পর্কে তা কিভাবে জানাবে?

নমুনা উত্তর:

প্রথমেই বলবো, তোমার নাম কি? তোমার পরিবারের সবাই কি ভালো আছে? তারপর বিদ্যালয়ের প্রত্যেক শিক্ষকের পরিচয় এবং তাঁরা কোন কোন বিষয়ের উপর ক্লাস করান সে সম্পর্কে বলব। এবং এলাকার দর্শনীয় কিছু স্থান সম্পর্কে পরিচয় করানো । তাছাড়া বলতে পারি, তুমি কি বিকালে আমাদের এলাকায় ঘুরতে যাবে?

পরিস্থিতি-৫: 

একটি বিষয় নিয়ে আপনার দুই বন্ধুর মতের পার্থক্য হয়েছে এবং তাদের মধ্যে তর্কাতর্কি হচ্ছে। বেশ কিছুক্ষণ ধরে এ অবস্থা চলায় তুমি এগিয়ে গেলে এবং তাদেরকে শান্ত করতে চাইলে। তোমার ভূমিকা ও কথা কী হবে?

নমুনা উত্তর:

আমি প্রথমেই তাদেরকে তুমি বলে সম্বোধন করবো এবং নিরপেক্ষ অবস্থানে থেকে তাদের ঝগড়া লাগার কারণটা ভালো করে জানবো। এবং তাদেরকে বুজাবো যে, ঝগড়া করা ভালো না এতে ক্ষতি ছাড়া কারোই লাভ হবে না। তোমরা যেহেতু বন্ধু, একসাথে খেলাধুলা করো সাময়িক ভুল বোজাবুঝি হতেই পারে। এখন তোমরা ঝগড়া বন্ধ করে দাও ।

পরিস্থিতি-৬: 

তোমার কাছাকাছি এলাকায় আগুন লেগেছে। এ রকম জরুরি অবস্থায় কার কার সাথে কিংবা কোন সেবাসংস্থার সাথে যোগাযোগ করবে এবং কীভাবে যোগাযোগ করবে?

নমুনা উত্তর:

প্রথমেই আমি চেষ্টা করবো ফায়ার সার্ভিস এর নাম্বার সংগ্রহ করা যদি না থাকে সেক্ষেত্রে এলাকার বড় ভাইয়ের কাছে অথবা পাড়া প্রতিবেশি কারো কাছ থেকে নাম্বারটি সংগ্রহ করতে পারি। যেহেতু তারা আমার থেকে বয়সে বড়, আপনি বলে সম্বোধন করবো যে দয়াকরে আপনি ফায়ার সার্ভিস এর নাম্বারটি দিতে পারবেন? নাম্বারটি নিয়ে ফায়ার সার্ভিসে ফোন দিবো। তাঁরা যেহেতু দেশের সেবায় নিয়োজিত অর্থাৎ সম্মানীয় ব্যক্তি। তাদের সাথে আপনি করে কথা বলবো। এভাবে বলতে পারি, আমার বুলতাঁরা এলাকায় ৭নং ওয়ার্ডে আগুল লেগেছে আপনারা কি দয়া করে দ্রুত আসবেন?

প্রসঙ্গের মধ্য থেকে যোগাযোগ ৭ম/সপ্তম শ্রেনি, প্রসঙ্গের মধ্য থেকে যোগাযোগ ৭ম/সপ্তম শ্রেনি, প্রসঙ্গের মধ্য থেকে যোগাযোগ ৭ম/সপ্তম শ্রেনি, প্রসঙ্গের মধ্য থেকে যোগাযোগ ৭ম/সপ্তম শ্রেনি

বাকি সব গুলো প্রশ্নের উত্তর গুলো আপনার পিডিএফে পেয়ে যাবেন। 

Facebook Page Link: Click here



Post a Comment

Cookie Consent
We serve cookies on this site to analyze traffic, remember your preferences, and optimize your experience.
Oops!
It seems there is something wrong with your internet connection. Please connect to the internet and start browsing again.
AdBlock Detected!
We have detected that you are using adblocking plugin in your browser.
The revenue we earn by the advertisements is used to manage this website, we request you to whitelist our website in your adblocking plugin.
Site is Blocked
Sorry! This site is not available in your country.
close